ফালাফ্যাল ও হামোস

ফালাফ্যাল ও হামোস

হেলদি কিন্তু টেস্টী খুবই জনপ্রিয় মধ্য প্রাচীয় স্ন্যাক্স যাহা এখন পুরো দুনিয়াতেই জনপ্রিয়। আরবরা রুটির সাথে ফালাফ্যাল ও হামোস দিয়ে স্যান্ডউইস বানিয়ে খায়।

ঝটপট বানানো যায় আর সহজ উপাদান বলে ইহা আমাদের শীতকালীন বিকেলের নাস্তাও হতে পারে…

ফালাফ্যাল তৈরিঃ

  • কাবলি ছোলাঃ ১কাপ(সারারাত বা কমপক্ষে ৮ ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।)
  • পেয়াজকুচিঃ ১টি বড়
  • রসুন কোয়া ঃ ২পিস
  • ধনেপাতা কুঁচিঃ ১/২কাপ
  • পার্সলে কুঁচিঃ ১/২কাপ(না দিলেও হবে)
  • টালা জিরা ধনে শুকনোমরিচ গুড়োঃ ১চা চামচ করে
  • কালো গোল মরিচ গুড়োঃ ১চা চামচ
  • ময়দা বা বেসনঃ ২টেবিলচামচ
  • বেকিং সোডা সামান্য
  • লবন পরিমান মত
  • লেবুর রসঃ ১টেবিলচামচ

কাবলি ছোলা পানি থেকে তুলে ঝড়িয়ে নিন। এর সাথে রসুন, পেয়াজকুচি, ধনেপাতা, কাচা মরিচ মিশিয়ে ফুড প্রসেসরে দিন। দানাদানা পেস্ট বানিয়ে নিন, একদম মিহি না।(চাইলে পাঁটায় ও বেটে নিতে পারেন)

এখন ছোলার মিশ্রনে একে একে বাকি সব উপকরন মিশিয়ে নিন। ছোট ছোট বল বানিয়ে নিন।

প্যানে তেল গরম করে নিন। চুলার আচ মাঝারি রেখে গরম তেলে ভেজে তুলুন।

হামোসের সাথে গরম পরিবেশন করুন।

হামোস তৈরিঃ

  • কাবিল ছোলা সিদ্ধ করাঃ ১/২কাপ
  • তিল বাঁটা/ পেস্ট/ তাহিনাঃ ২টেবিলচামচ
  • রসুন কয়াঃ ১পিস
  • জীরা গুঁড়োঃ ১/২ চা চামচ
  • অলিভ ওয়েলঃ ২ টেবিলচামচ

ব্লেন্ডারে কাবিল ছোলা, তাহিনা, জিরা , রসুন, ১টেবিলচামচ তেল ও ২ টেবিলচামচ পানি দিয়ে মিহি পেস্ট করে নিন। ্লবন দিন স্বাদ বুঝে।

বাটিতে ঢেলে এর উপর বাকি তেল বিছিয়ে দিন।

ফ্রিজে রেখে ১ সপ্তাহ ও খাওয়া যাবে এটি।

 

 

 

 

 

Leave a Reply