ফ্রাইড ডোনাট

ফ্লাফি ফ্রাইড ডোনাট,

সুপার স্পঞ্জি ও ফ্লাফি গরম গরম ডোনাট।আমার ঘরে বেশ জনপ্রিয় ইহা। বড়ছোট সবাই পছন্দ করে খাবে ইনশাআল্লাহ্‌… একবার বানিয়ে চাইলে ফ্রিজে রেখে মাসব্যাপী খাওয়া যাবে.

উপকরন
ময়দাঃ ৪কাপ
ইনস্ট্যান্ট ইস্টঃ ২ চামচ + ১/২ চামচ
লবনঃ ১/২ চাচামচ
চিনিঃ ৩ টেবিলচামচ
মাখনঃ ২টেবিলচামচ (গলানো)
দুধঃ ১কাপ(স্বাভাবিক তাপমাত্রার)
ডিমঃ ১টি(বড়)

কোটিং এর জন্য

গুঁড়ো চিনিঃ ১/৪কাপ
দারচিনি গুড়োঃ ১টেবিলচামচ

প্রণালী
গলানো মাখন ,চিনি, লবন, দুধ ও ডিম ভাল করে ফেটে নিন। এই মিশ্রনের সাথে ইস্ট মিশিয়ে ফেটে নিন। ঢেকে ৫ মিনিট রেখে দিন।

৫ মিনিট পর ডিম দুধের মিশ্রনে ময়দা মিশাতে থাকুন। সারে ৩ কাপ(৩ & ১/২ কাপ) ময়দা নিবেন আর ১/২ কাপ রোল করার জন্য লাগবে।

খামিরটি হাত দিয়ে ভাল করে মথে নিন। খামির বেশ স্টিকি হবে তাই হাতে তেল লাগিয়ে নিতে পারেন। কাপড় দিয়ে ঢেকে(যাতে বাতাস না ঢুকতে পারে) তারউপর ঢাকনা দিয়ে কমপক্ষে ২ঘণ্টা রাখুন।

২ঘন্টা পর খামির ফুলে উঠলে হাত দিয়ে ভাল করে মথে নিন।লাগলে অল্প ময়দা দিন।এবার বেশ স্মুথ হবে।আবার ঢেকে ১ ঘন্টা রাখুন।

রুটি বেলার জায়গাতে ময়দা ছিটিয়ে নিন। খামির নিয়ে ৩ ভাগ করে নিন।

১ভাগ নিয়ে ১/২ ইঞ্চি মোটা রূটি বানিয়ে নিন।

গোল কাটার বা কোন কিছুর ঢাকনা দিয়ে ৪ইঞ্চি ডায়ামিটারে কেটে নিন।

আঙ্গুল দিয়ে বা ছোট কাটার দিয়ে মাঝখানে কেটে নিন। বেকিং পেপার বা কোন কিছুর উপরে ময়দা ছিটিয়ে তাঁর উপরে রাখুন। ২০ মিনিটের মত এভাবে রেখে দিন। এই অবস্থায় ডোনাট বেশ ফুলে যাবে।

কড়াইতে পরিমান্মত তেল দিন যাতে ডনাটগুলো ভেসে থাকতে পারে। তেল গরম হলে আস্তে করে ডোনাটগুলো ছাড়ুন ও চুলার আচ কমিয়ে দিন। সময় নিয়ে দুপাশ বাদামি করে সবগুলো ভেজে তুলুন।

একটি প্যাকেটে চিনি ও দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে নিন।গরম ডোনাট প্যাকেটে দিয়ে ঝাকিয়ে নিন যাতে চিনিতে কোটীং হয়। গরম পরিবেশন করুন।

চাইলে ফ্রিজে অনেকদিন রাখতে পারবেন। খাওয়ার কিছুসময় আগে নামিয়ে নিন।

 

 

Leave a Reply