ক্ষীর টোস্ট

ক্ষীর টোস্ট, রসালো ছানার টোস্টের উপর একদম পিউর ক্ষীর… আমি ২কেজি দুধের ছানা থেকে ২ পিস বড় চমচমের আকারের মিস্টি বানিয়ে স্লাইস করে নিয়েছি…
 
ছানা তৈরিঃ
• দুধঃ ২ লিটার
• লেবুর রসঃ ৩ টেবিলচামচ/ ভিনেগার
• সুতি /মসলিন নরম কাপড়
দুধ চুলায় দিয়ে ফুটতে শুরু করলেই চুলা বন্ধ করে দিন।
ভিনেগারের সাথে ২ টেবিলচামচ পানি মিশিয়ে অল্প অল্প করে দুধে মিশাতে থাকুন।দুধ ফেটে সবুজ পানি আলাদা হয়ে গেলে সাথে সাথে ছানা কাপড়ে ছেকে ফেলুন।এখন ঠান্ডা পানিতে ছানা ৩বার ধুয়ে নিন যাতে লেবুর টক ভাব দূর হয়ে যায়।
ছানার কাপড়ের পুতলি চেপে চেপে পানি বের করে উচু জায়গাতে ঝুলিয়ে রাখুন ২ঘন্টা। (পানির কলের উপরে রাখলে ভাল হয়)
 
চমচম তৈরিঃ
• ছানাঃ ২কাপের কম (২ লিটার দুধের)
• ময়দা ও সুজিঃ ২ চা চামচ করে
• মিহি গুড়ো চিনিঃ ২চা চামচ
• গোলাপজল ইচ্ছে অনুযায়ী
 
সিরার জন্যঃ
পানিঃ১২ কাপ(মিষ্টির আকার বড় বলে পানি বেশি লাগবে)
চিনিঃ ২ কাপ
 
প্লেটে ছানা নিয়ে কিছুসময় হাল্কা বাতাসে মেলে রাখুন।এতে ছানার পানি থাকলে শুকিয়ে যাবে।এখন ময়দা , সুজি ও চিনিগুড়ো মিশিয়ে আরো ৪-৫ মিনিট এর মত মথতে হবে।ছানা ২ ভাগ করে নিন।হাতে ঘি মাখিয়ে দু হাত দিয়ে ২পিস বড় চমচমের এর আকারে বানিয়ে নিন।
 
হাড়িতে চিনির সঙ্গে পানি দিয়ে চুলায় দিন।ফুটতে দিন, ঢাকনা দিবেন না।
অন্য প্যানে ১/২কাপ চিনি আর ১ টেবিলচামচ পানি চুলায় দিয়ে ক্যারামেল(লালচে বাদামি) করে নিন।এই ক্যারামেল চমচমের হাড়িতে ঢেলে দিন।
এখন খুব সাবধানে চমচম ২ পিস সিরায় ছাড়ুন। আঁচ বাড়িয়ে ঢাকনা আটকিয়ে দিন।১০ মিনিট এভাবে রাখুন।১০ মিনিট পর আচ মাঝারি করে আরো ২০ মিনিট রাখুন।
 
ইচ্ছেমত রঙ আসলে চুলা বন্ধ করে সিরাসহ চমচম পাতিলেই রাখুন ও ঠান্ডা করুন।গরম নাড়তে গেলে ভেঙ্গে যেতে পারে।
 
ক্ষীর তৈরিঃ ১লিটার দুধ চুলায় দিয়ে একদম ঘন করে নিন।ঘন হলে পরিমান্মত চিনি ও সামান্য গোলাপজল দিন।চিনি গলে আবার ঘন হলে নামিয়ে নিন।(বাজারের কেনা ক্ষীর ও নিতে পারেন)
 
চমচম ১ইঞ্চি বা ইচ্ছেমত স্লাইস করে নিন।প্রতি স্লাইসের উপর ১টেবিলচামচ ক্ষীর বিছিয়ে দিন।চাইলে উপরে মাওয়া ঝুরা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।
 

Leave a Reply