টসটসা মটর পুরি

টসটসা মটর পুরি, ডাল,কিমা,আলু কতো পুরিই খাই কিন্তু আমার সবচেয়ে পছন্দের মটর পুরি।এখন মটরশুটির সিজন চলছে তাই এই সময়ে এটি বেশি চলে আরকি… পুরে মটরের সাথে আজইন বা রাঁধুনি দানা দিয়েছি যাহা কামরে কামরে ইহার স্বাদ আরো বাড়িয়ে দিয়েছে…


উপকরনঃ
পুর তৈরিঃ

  • মটরশুটি: ২কাপ
  • তেলঃ ২ টেবিলচা্মচ
  • আজইন বা রাঁধুনিঃ ১চা চামচ
  • কালোজিরাঃ ১চা চামচ
  • হলুদ, লবন মরিচ,জিরা গুড়োঃ ১/২ চা চামচ করে
  • ধনেপাতাঃ ২টেবিলচা্মচ ও কাচামরিচ ৩পিস

মটরশুটি গরম পানিতে ৪-৫ মিনিট ফুটিয়ে পানি ঝড়িয়ে নিন।

মটরশুটি, ধনেপাতা, কাচামরিচ একসাথে বেটে বা ব্লেন্ড করে পে্সট বানিয়ে নিন।

প্যানে তেল দিয়ে আজইন বা রাঁধুনি ও কালোজিরা দিন। হাল্কা ভেজে মটরশুটি পেস্ট ও বাকি মশলা দিয়ে ভাজতে থাকুন।একদম শুকনো শুকনো ভাজা ভাজা করে নামিয়ে রাখুন।(পানি থাকলে পুরি বেলার সময় পুর বের হয়ে যাবে)

পুরি তৈরিঃ
• ২ কাপ ময়দা
• ২চা চা্মচ তেল
• ১/২চা চা লবন ও ১ চা চামচ চিনি
• হাল্কা গরম পানি পরিমানমত
• ১/২ কাপ ময়দা রুটি বেলার জন্য

ময়দা, লবন, চিনি, তেল ভাল করে মিশিয়ে দুহাত দিয়ে ঝুরাঝুরা করে নিন।পরিমান মত পানি দিয়ে মাখিয়ে কিছুটা নরম সফট খামির বানিয়ে নিন।

৩০ মিনিট ঢেকে রেখে খামির ১০- ১২ ভাগ করে নিন।একভাগ হাতে নিয়ে চেপে চেপে গোল রুটির মত বানিয়ে নিন(রুটির মাঝখানটা পুরু থাকবে আর চারিপাশ পাতলা থাকবে)।

এখন ১ টেবিলচা্মচ পুর রুটির মাঝখানে রেখে চারিপাশ একসাথে নিয়ে আটকিয়ে দিন।হাত দিয়ে গোল করে রাখুন।এভাবে সবগুলো বল বানিয়ে নিন।

পিড়িতে অল্প ময়দা দিয়ে বল গুলো নিয়ে প্রথমে হাত দিয়ে চেপে চেপে বড় করে নিন।তারপর আলতো করে আস্তে আস্তে বেলে নিন।

ফ্রোজেণ পদ্ধতিঃ

গরম তাওয়াতে তেল ব্রাশ করে চুলার আচ কমিয়ে নিন।এখন পুরি গুলো দিয়ে দুপাশ ১মিনিটের মত রেখে নামিয়ে ঠান্ডা করুন।সব পুরি হয়ে গেলে পলিব্যাগে বা বাটিতে রেখে ডিপ ফ্রিজে রাখুন।
ভাজার ১০ মিনিট আগ ফ্রিজ থেকে নামিয়ে রাখুন।

কড়াইতে তেল দিয়ে তেল কিছুটা গরম হলে ডুবোতেলে পুরি দিন।চুলার আচ কমিয়ে রেখে সময় নিয়ে ভাজুন তবে পুড়ি অনেকসময় ক্রিস্পি থাকবে।গরম তেলে বেশি আচে ভাজলে পুড়ি ভাল হবেনা।

সব গুলো পুরি একদম ফুলে যাবে ইনশাল্লাহ।

 

Leave a Reply