শাহী খাট্টা বেগুন

শাহী খাট্টা বেগুন

পোলাউ, বিরিয়ানী, সাদা ভাত এমনকি রুটির সাথেও বেশ ভাল লাগে সবজির এই পদটি। যেকোন দাওয়াতে সবজির পদ কি হবে তা নিয়ে অনেকেই চিন্তায় থাকে, তারা অনায়াসেই এটি বানিয়ে দেখতে পারেন……

স্টাফিং তৈরিঃ

  • নারিকেল মিহি কোরানো বা গুড়োঃ ১/৪কাপ
  • পোস্তদানাঃ ২টেবিলচামচ
  • তিলঃ ২টেবিলচামচ
  • আস্ত জিরা ও ধনেঃ ২টেবিলচামচ করে

উপরের সব উপকরণ গরম তাওয়াতে হালকা করে টেলে নিন।

এখন ১/৪ কাপ চিনাবাদাম হালকা আচে মচমচে করে টেলে নিন। টালা মশলার সাথে মিশিয়ে নিন।

গ্রিন্ডারে বা পাটায় টালা সব উপকরণ গুড়ো করে নিন।(এই মশলা মাসব্যাপী বায়ুরোধী পাত্রে রেখে ব্যবহার করতে পারবেন)

বেগুন রান্নাঃ

  • ছোট বেগুনঃ ১০-১২পিস
  • তেলঃ ১/২কাপ
  • পেঁয়াজ বাটাঃ ১/২কাপ
  • আদা রসুন বাটাঃ ১টেবিলচামচ করে
  • আস্ত সরিষা ও জিরাঃ ১চাচামচ করে,
  • তেজপাতাঃ ১পিস, আস্ত শুকনো মরিচঃ ২পিস
  • মরিচের গুড়োঃ ২চা চামচ
  • জিরা ও হলুদের গুড়োঃ ১চা চামচ করে
  • বানানো টালা মশলাগুড়োঃ ১/৪কাপ
  • তেতুলের ক্বাথ ঃ ২চা চামচ
  • ধনেপাতাঃ ২টেবিলচামচ

বোটার অংশ আস্ত রেখে ছুড়ি দিয়ে বেগুনগুলো্র আগার অংশ চার ভাগ করে দিন।(ছবির মতঁ)

২টেবিলচামচ টালা গুড়ো মশলার সাথে ১/২ চাচামচ লবন মিশিয়ে নিন। এখন এই মশলা বেগুনের ভেতরে ফাঁড়া অংশে ভাল করে লাগিয়ে দিন।

প্যানে ২টেবিলচামচ তেল দিয়ে মশলাভরা বেগুনগুলো হালকা করে ভেজে নিন।বেগুন কিছুটা নরম হলে প্যান থেকে তুলে রাখুন।

একই প্যানে বাকি তেল দিন। আস্ত জিরা, সরিষা ,আস্ত শুকনো মরিচ ও তেজপাতা দিন।ফুটতে শুরু করলে পেয়াজবাটা ও আদা রসুন বাঁটা দিন।পানি টেনে গেলে হলুদ মরিচ ও বাকি সব গুড়ো মশলা দিন। ১/২ কাপ পানি দিয়ে মশলা ভাল করে কশিয়ে নিন। তেঁতুল ও লবন দিন। ২কাপ পানি দিন। পানি ফুটতে শুরু করলে ভাজা বেগুন দিন।

চুলার আচ কমিয়ে ১০ মিনিট রাখুন। বেগুন উল্টিয়ে আরো কিছুক্ষন রেখে গ্রেভী ঘন হলে লবন দেখুন। চাইলে তেঁতুল  স্বাদমত বাড়াতে পারবেন। ১/২চা চামচ চিনি দিয়ে নেড়ে চুলা বন্ধ করে দিন। ধনেপাতা ছিটিয়ে পরিবেশন করুন।

 

 

 

Leave a Reply