শর্ষে ইলিশের খিচুড়ি

শর্ষে ইলিশের খিচুড়ি(sumi’s special), একটু বেশিই স্পাইসি, একটু বেশিই মজা…আজ ১ম এক্সপেরিমেন্ট করলাম, আলহামদুলিল্লাহ্‌ রেজাল্ট খুবই ভাল…

১ম ধাপ,

• ইলিশ মাছ: ৮ টুকরা(১টি)
• ফেটানো টকদইঃ ১/২ কাপ
• পিঁয়াজ বাটাঃ১কাপ
• লবন স্বাদ মত
• হলুদ গুড়াঃ ১ চা চামচ
• সরিষা মিহিবাটাঃ ৩/৪ কাপ(৩-৪ টি কাচামরিচ মিশিয়ে বেটে নিন)
• মরিচগুড়োঃ ১চা চামচ
• সরিষার তেলঃ ১/২ কাপ
• চিনিঃ ১চা চামচ

একটি ছড়ানো প্যানে মাছ বাদে সব উপকরন মিশিয়ে নিন।


মাছের টূকরাগুলো মশলায় দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।
ঢেকে ৫ মিনিট মাঝারি আচে রেখে রান্না করুন।
এখন মাছ উল্টে দিন। আবার ঢেকে অল্প তাপে ৩০ মিনিট রান্না করুন।লবন দেখে চুলা বন্ধ করতে হবে।
মাছ সরিষার ঝোল থেকে তুলে রাখুন।

২য় ধাপ

পোলাওর/ বাসমতী চাল ৩ কাপ(বাসমতী হলে ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন)
মুগ ডালঃ দেড় কাপ (ডাল তাওয়াতে টেলে নিয়ে ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে নিন)
তেলঃ ১/২কাপ ও ঘিঃ ২ টেবিলচামচ
পেঁয়াজ, কুচিঃ ১/২কাপ
আস্ত শুকনো মরিচঃ ৩পিস
এলাচঃ ৪, দারচিনি : তিন টুকরা, তেজপাতাঃ ১ টি
মরিচ, গুড়োঃ ১ চা চা
হলুদ গুড়োঃ ১/২চচা চ(মাছে হলুদ আগে দেয়া হয়েছে)
ভাজা জিরা, গুড়োঃ ১/২চা চা
রসুন ও আদা, বাটাঃ ১চা্মচ করে
লবন পরিমান্মত
কাচামরিচঃ ৫
পানি, ফুটানোঃ ৮ কাপ

হাঁড়িতে তেল দিয়ে পেয়াজ , আস্ত মরিচ ও গোটা গরম মশলা দিন।পেয়াজ সোনালি হলে আদা রসুন, হলুদ মরিচ, জিরা দিন।

হাল্কা ভেজে মাছের ঝোল দিন।এখন ডাল ও চাল দিয়ে মশলার সাথে ভাল করে মিশিয়ে ২ মিনিট ভাজুন।
গরম পানি দিন।কাচামরিচ, লবন দিয়ে নাড়ুন।
চাল ফুটে পানির সমান সমান হয়ে গেলে নেড়ে , লবন চেক করে ঢেকে দিন। ঢেকে অল্প আচে রাখুন।ঢাকনা দেয়ার ২০ মিনিট পর চুলা থেকে নামিয়ে নিন।
(***ঢাকনা দেয়ার পরে কোনোক্রমেই ঢাকনা খুলবেন না এবং খিচুড়ি নাড়বেন না। ঝরঝরা হওয়ার জন্য এটি খুব জরুরী।)
ঢাকনা খুলে ঘি ছিটিয়ে নেড়ে দিন ।
মাছের পিস গুলো খিচুরির উপর দিয়ে অল্প খিচুড়ি দিয়ে ঢেকে ১৫ মিনিট রেখে
গরম পরিবেশন করুন।

 

Leave a Reply