সুইস বাটারক্রিম ফ্রস্টিং

সুইস বাটারক্রিম ফ্রস্টিং, বাটারক্রিমের বেস্ট ফ্রস্টিং এটা।খুবী ইয়াম্মি আর খাওয়ার সময় চিনির দানা বা মাখনের তেলতেল ভাব কোন কিছুই মনে হবেনা।আর এটা বেশিসময় ধরে stable থাকে তাই হুইপড বা বাটার ক্রিমের মত খুব গরমেও গলে যাবেনা।

উপকরন

  • ডিমের সাদাঃ ৭টি(ডিম ফ্রিজ থেকে নামিয়ে কুসুম আলাদা করে তারপর ১ঘন্টা নরমাল তাপমাত্রায় রাখুন)
  • চিনিগুড়োঃ ২কাপ
  • মাখনঃ ১কাপ + ১/২কাপ ( ঠান্ডা মাখন ছোট কিউব করে কেটে ১ঘন্টা নরমাল তাপমাত্রায় রাখুন)
  • ভ্যানিলা এসেন্সঃ ২চা চামচ
  • লবনঃ সামান্য

মাখন ব্যবহারের আগে যেন সফট থেকে, হাত দিয়ে ধরলে ঠান্ডা লাগবে কিন্তু সফট।যদি গরম বা তেলতেলে হয়ে যায় তবে ৫ মিনিট ফ্রিজে রেখে বের করুন।

একটি হাড়ি ও একটি বড় বাটি নিন।বাটিটি যেন হাড়ির উপর পুরোপুরি বসালে হাড়িটি যেন ঢেকে যায়।(ডাবল বয়েলার এর মত)

বাটিটিতে ডিমের সাদা ও চিনি দিন।

চুলায় হাড়িতে ১ ইঞ্চি পরিমান পানি দিয়ে ফুটতে দিন।পানি ফূটলে চুলার আচ কমিয়ে বাটিটি হাড়ির উপর দিয়ে অনবরত নাড়ুন।(হাড়ির পানি যেন বাটি থেকে নিচে থাকে, বাটিকে না ছুতে পারে)

৩-৪ মিনিটের মধ্যেই দেখবেন মিশ্রনের চিনি গলে মিশ্রণটি কিছুটা গরম হয়েছে।নাড়তে থাকুন।যখন আঙ্গুল মিশ্রনে দিলে গরম হয়ে যাবে তখন চুলা থেকে নামিয়ে নিন।

ডিমের মিশ্রণটি যে পাত্রে বিট করবেন সেটাতে ধালুন।কিছুটা ঠান্ডা হলে বিট করা শুরু করুন।মাঝারি স্পিডে ৩ মিনিটের মত করে স্পিড বাড়িয়ে ১০ মিণিটের মত বিট করলে দেখবেন ফোম হয়ে গিয়েছে একদম।আর পুরোপুরি ঠান্ডা হয়েছে কিনা দেখুন।

এখন অল্পঅল্প করে বাটার মিশিয়ে মাঝারি স্পিডে বিট করতে থাকুন।বাটার পুরোপুরি মিশে গেলে দেখবেন ক্রিম অনেক সফট হয়ে গিয়েছে।ভয় পাবেন না।

এই পর্যায়ে ১০-১৫ মিনিট বিট করলে একদম পারফেক্ট ক্রিম পেয়ে যাবেন।এসেন্স ও লবন মিশিয়ে ২মিনিট বিট করুন।

ইচ্ছেমত ব্যবহার করুন।ফ্রিজে রাখলে নামিয়ে নরমাল তাপমাত্রায় এনে বিট করে নিন।সপ্তাহখানেক ভাল থাকবে এটি।

 

 

Leave a Reply