ভুঁড়ি বা বট ভাজা/ ভূড়ির কালোভুনা

ভুঁড়ি বা বট ভাজা/ ভূড়ির কালোভুনা
ইহা আম্র খুব পছন্দের, আর আপনার?

উপকরনঃ
• গরুর ভুড়িঃ ১ কেজি(মাঝারি আকারের পিস করে নিন। ফুটন্ত গরম পানিতে ধুয়ে চামচ দিয়ে ময়লা চামড়া পরিস্কার করুন)
• পেয়াজ কুচিঃ ২ কাপ
• আদা রসুন বাটাঃ ১ টেবিল চামচ করে
• মরিচ গুড়োঃ ২ চা চামচ
• হলুদ গুড়োঃ ১ চা চামচ
• টালা জিরা ও ধনে গুড়োঃ ১ চা চামচ করে
• গরম মশলা গুড়োঃ ২ চা চামচ
• জায়ফল ও জয়ত্রী গুড়ো বা বাঁটা ১/২চা চামচ করে
• তেজপাতাঃ ২ , এলাচ ৮-১০ পিস , দারচিনি ৩ টি, লবঙঃ ২-৩ টি করে
• তেলঃ ১/২ কাপ( সরিষা ও নরমাল মিশানো)

ফোরনের জন্য
• শুকনো মরিচ আস্ত ৪-৫ টি
• পেয়াজ বড় কুঁচিঃ১ কাপ
• রসুন কোয়াঃ ৬-১০  টি

•আস্ত জিরাঃ ১চা চামচ ও ঘিঃ ২ টেবিল চামশ

ফুটন্ত গরম পানিতে ভুরির পিসগুলো ১৫ সেকেন্ডের মত ভিজিয়ে তুলে সাথে সাথে চামচ বা ছুড়ি দিয়ে পরিস্কার করে নিন।

একটি পাত্রে ৪কাপ পানি, ১ টেবিল চামচ লবন ও ১ চা চামচ হলুদ দিয়ে ফুটতে শুরু করলে ভুড়ির বড় পরিস্কার করা পিসগুলো দিয়ে ৭-৮ মিনিট ফুটিয়ে নিন।এতে অতিরিক্ত তেল চর্বি বের হয়ে ভাল করে পরিস্কার হবে। পানি ফেলে ঠান্ডা করে ছোট ছোট পিস করুন।৪-৫বারে ভাল করে ধুয়ে নিন।

কড়াইতে তেল দিয়ে সব গরম মশলা দিন।ফুটতে শুরু করলে ভুড়ী ও অন্যান্য সব উপাদান একসাথে মিশিয়ে দিন।মাঝারি আচে ১০ মিনিট ঢেকে রান্না করুন। পানি শুকিয়ে কষিয়ে নিন।
তারপর ১ কাপ পানি দিয়ে অল্প আঁচে ৩০মিনিট রান্না করুন।পানি শুকিয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে ঢেকে রাখুন।

৪-৫ ঘন্টা পর আবার ১ কাপ গরম পানি দিয়ে অল্প আচে রাখন।পানি শুকিয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন।এভাবে কয়েকবার ১কাপ পানি দিয়ে ২ দিনব্যাপি রান্না করুন।একটু মাখমাখা থাকবে এসময়।

অন্য একটি কড়াইতে ঘি দিয়ে পেঁয়াজ, শুকনোমরিচ, জিরা ও রসুন দিন।পেঁয়াজ হালকা ভাজা হলে ভুড়ী ভুনা দিন।ভাল করে মিশিয়ে মাঝারি আচে ভাজতে থাকুন।ভাজা ভাজা হলে লবন দেখে ৫ মিনিট অল্প আচে ঢেকে রাখুন।

গরম গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।

 

Leave a Reply